Wednesday, October 21, 2020
টপ নিউজরাজশাহী

সব কিছুর বিকল্প আছে,শেখ হাসিনার বিকল্প নাই-আসাদুজ্জামান আসাদ

451views

সব কিছুর বিকল্প আছে, শেখ হাসিনার বিকল্প নাই : নওহাটার বিশাল জনসভায় আসাদ

Asaduzzaman Asadনিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ বলেছেন, আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যাকেই নৌকা প্রতীক দেওয়া হবে আমরা তাকেই জয়ী করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালি করবো। কারণ বাংলাদেশে সব কিছুর বিকল্প আছে, কিন্তু শেখ হাসিনার কোন বিকল্প নাই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গ্রামাঞ্চলে যে উন্নয়ন করে চলেছেন তা অব্যহত রাখার জন্য আওয়ামী লীগের প্রতিটি নেতাকর্মী ও সমর্থকদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে আবারো আমাদের প্রতীক ও প্রার্থী নৌকাকে ভোট দিয়ে ক্ষমতায় আনতে হবে।

শনিবার নওহাটা পৌর আওয়ামী লীগের আয়োজনে নওহাটা গরু হাটে বিশাল জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ। তিনি বলেন, ১৯৭৫ সালে যখন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করা হয় তখন যেমন আওয়ামী লীগ নামধারী কিছু ষড়যন্ত্রকারী ছিল, ঠিক ২০১৮ সালেও দলের মধ্যে এরকম ষড়ন্ত্রকারী আছে। তাই আমাদেরকে সাবধানে থাকতে হবে। সর্বদায় চোঁখ-কান খোলা রাখতে হবে যেন তারা কোন ভাবে দলের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করতে না পারে।

Asaduzzaman Asadজননেতা আসাদ বলেন, টানা দশ বছর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা হয়তো কোন ভুল করতে পারে, কিন্তু বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা কোন ভুল করবেন না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশের প্রতিটি আসনে শত শত ফুল ফুটবে, তার মধ্যে থেকে শ্রেষ্ঠ ফুলটি তিনি বেছে নিবেন। ঠিক পবা-মোহনপুর আসনেও অনেক প্রার্থী প্রচার-প্রচারণা করছেন এবং করবেন। তার মধ্যে থেকে সৎ, যোগ্য, মেধাবী এবং সাংগঠনিক কর্মীবান্ধব নেতাকেই তিনি আগামী সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন দিবেন বলে আশা করি। আপনারাও প্রধানমন্ত্রীর মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীকে ভোট দিয়ে দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখবেন। তিনি বলেন, পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ দশ জন কম্পিউটার বিজ্ঞানীদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা ও পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয় হলেন একজন। তিনি দেশের যুব সমাজের জন্য আইডল।

নওহাটা পৌর আওয়ামী লীগের আয়োজনে বিশাল জনসভায় সভাপতিত্ব করেন নওহাটা পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রিয়াজ উদ্দিন মাস্টার। এসময় সমাবেশে বক্তব্য দেন, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান চঞ্চল, সাংগঠনিক সম্পাদক আলফোর রহমান, দপ্তর সম্পাদক ফারুক হোসেন ডাবলু, তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক অধ্যাপক শামসুজ্জামান, উপ-দপ্তর সম্পাদক প্রভাষক শরিফুল ইসলাম, সাবেক ছাত্রনেতা এ্যাড. আবু রায়হান, জেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আলী আজম সেন্টু, যুবনেতা মোস্তাক আহমেদ, জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুল্লাহ খান, নওহাটা পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল হাসান ও বাবুল, নওহাটা পৌর মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও জেলা পরিষদের সদস্য শিউলী রানী প্রমুখ।

Asaduzzaman Asadজনসভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, সাবেক ছাত্রনেতা আর.ইউ আহম্মেদ শাহিন, জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি আরিফুল হক রাজা, সাংগঠনিক সম্পাদক সেজানুর রহমান, প্রচার সম্পাদক রফিকুজ্জামান রফিক, উপ-প্রচার সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন পিন্টু, পবা উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন নয়ন, জয়বাংলা পরিষদের আহ্বায়ক শফিকুজ্জামান শফিক, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জোসনা আরা খাতুন, হরিপুর ইউপি আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইদুর রহমান বাদল, নওহাটা পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি তানভির রহমান, জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আজাদ আলী, পবা উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি মাহাবুবুর রহমান স্বপন, হরিয়ান ইউপি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জেবর আলী, নওহাটা পৌর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আঃ আজিজ, নওহাটা পৌর আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক রেজওয়ানুল হক পিনু, নওহাটা পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রুমেল, মোহনপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক সুরঞ্জিত সেন, ঘাশিগ্রাম ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান আফজাল হোসেন বকুল, মোহনপুর উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিপন শেখ, জেলা বঙ্গবন্ধু টেকনোলজিস্ট পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ফাইসাল সহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীবৃন্দ।

এদিকে, স্থানীয়রা জানান, সাম্প্রতিক সময়ে পবা এলাকায় আওয়ামীলীগের উদ্যোগে এত বড় কোন সভা সমাবেশ হয়নি। নওহাটার এই জনসভাস্থল নওহাটা হাট হলেও এটি ছড়িয়ে পড়ে আশপাশের রাস্তা ও বাজার পর্যন্ত। পুরো মাঠ কর্মী সমর্থকদের উপস্থিতিতে কানায় কানায় বরে যায়। আশপাশের রাস্তার উপরে প্রচুর সংখ্যক মানুষকে দেখা গেছে। শুধু আওয়ামীলীগ নেতা কর্মীই নয় সাধারণ মানুষের সমাগম ঘটে জনসভাস্থলে।

Leave a Response