Monday, October 26, 2020
টপ নিউজরাজশাহী

রাজশাহীবাসী গুণী নৃত্যশিল্পীকে হারালো

134views

রাজশাহীসহ দেশবাসী গুণী ও প্রতিভাবান নৃত্যশিল্পীকে হারালো

নিজস্ব প্রতিবেদক:
স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নৃত্যগুরু বজলুর রহমান বাদলের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। রোববার বিকেলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করলে রাজশাহী নগরীর টিকাপাড়া গোরস্থানে বাদ এশা তার দাফন সম্পন্ন হয়।
রোববার বিকেলে বার্ধক্যজনিত কারণে মৃত্যুবরণ করেন তিনি। গত ১৭ আগস্ট তিনি মেডিকেলে ভর্তি হন।
গুণী এই শিল্পী ২০১৭ সালে দেশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় সম্মান স্বাধীনতা পদকে ভূষিত হন। এছাড়া বহু পদক পান তিনি। ৯৫ বছর বয়সী ওস্তাদ বজলুর রহমান বাদল নগরের শিরোইল এলাকায় মেয়ের বাসায় থাকতেন। গত শুক্রবার দিবাগত রাত পৌনে দুইটার দিকে তিনি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে রামেক হাসপাতালে নেয়া হয়। শয্যা না পাওয়ায় শনিবার দুপুর পর্যন্ত হাসপাতালের ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের মেঝেতে শুয়ে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন তিনি। এ খবর ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে নবনির্বাচিত সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও জেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে তাকে হাসপাতালের শয্যা দেয়া হয়।

২০১৭ সালে জাতীয় পর্যায়ে গৌরবোজ্জ্বল ও কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ স্বাধীনতা পদক পান নৃত্যশিল্পী বজলুর রহমান বাদল। পদকপ্রদান অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার হাতে পদক তুলে দেন। এ ছাড়াও তিনি শিল্পকলা অ্যাকাডেমি পুরস্কার, নজরুল অ্যাকাডেমি পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কার ও সংবর্ধনায় ভূষিত হয়েছেন। পেয়েছেন ‘নৃত্যগুরু’ উপাধি।

গুণী এই শিল্পী ১৯২৩ সালের ১৮ অক্টোবর পশ্চিমবঙ্গের মালদহ জেলা শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তার পূর্বপুরুষেরা কলকাতার মানুষ। দাদা আশাক হোসেন আমের ব্যবসা করতে এসে মালদহে বসবাস শুরু করেন। সেখানেই তিনি জন্মগ্রহণ করেন। বাবার নাম আবুল কাশেম ও মা সখিনা বিবি। বজলুর রহমান ১৯৪৫ সালে মালদহ জিলা স্কুল থেকে ম্যাট্রিকুলেশন পাস করেন। পরের বছর নাটকে অভিনয় করতে রাজশাহী আসেন। এরপর পুরো জীবনকাল রাজশাহীতেই অতিবাহিত করেন।

এদিকে, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নৃত্যগুরু বজলার রহমান বাদলের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। রোববার সন্ধ্যায় এক শোক বার্তায় তিনি মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন।

শোক বার্তায় মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নৃত্যগুরু বজলার রহমান বাদলের মৃত্যুকে রাজশাহীসহ দেশবাসী গুণী ও প্রতিভাবান নৃত্যশিল্পীকে হারালো। তাঁর মৃত্যুতে যে শূন্যতা সৃষ্টি হলো, তা অপূরণীয়।

শোক বার্তায় মেয়র লিটন মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা ও শোক সন্তোপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

অপরদিকে, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নৃত্যগুরু বজলার রহমান বাদলের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাজশাহী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার। রোববার রাতে এক শোকবার্তায় তিনি বজলার রহমানের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনাও জানান।

এদিকে অপর এক শোক বার্তায়, স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত নৃত্যগুরু বজলার রহমান বাদলের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বিশিষ্ট সমাজসেবী ও মেয়র লিটনপত্নী শাহীন আকতার রেনী। রোববার রাতে গণমাধ্যমে পঠানো এক শোক বার্তায় তিনি মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন।

এই বর্ষিয়ান শিল্পীর প্রয়াণে শোকের ছায়া নেমে এসেছে রাজশাহীর সাংস্কৃতিক অঙ্গনে। তাঁর মৃত্যুতে শোক জানান সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট রাজশাহী-এর সভাপতি ভাষাসৈনিক আবুল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার ঘোষ।
আরো শোক জানান, মুক্তিযুদ্ধ পাঠাগারের সভাপতি প্রকৌশলী তাজুল ইসলাম, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় যুগ্ম সহ-সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান, রাজশাহী মহানগরের নির্বাহী সভাপতি ড. সুজিত সরকার, সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান উজ্জল, বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটারের রাজশাহী বিভাগীয় সমন্বয়কারী কামার উল্লাহ সরকার, রাজশাহী থিয়েটারের সভাপতি নিতাই কুমার সরকার, সাধারণ সম্পাদক সাদিয়া খানম।

Leave a Response