Saturday, October 24, 2020
উত্তরাঞ্চল

যুবককে পরিষদে আটকে রেখে নির্যাতন, চেয়ারম্যানসহ ৭জনের বিরুদ্ধে মামলা

306views

যুবককে পরিষদে আটকে রেখে নির্যাতন, চেয়ারম্যানসহ ৭জনের বিরুদ্ধে মামলা

mandaমান্দা প্রতিনিধি: নওগাঁর মান্দা উপজেলার কাঁশোপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের হলরুমে নজরুল ইসলাম (২৮) নামে এক যুবককে আটকে রেখে নির্যাতনের ঘটনায় সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। নির্যাতনের শিকার নজরুল ইসলামের চাচা আজাহার আলী বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে মান্দা থানায় মামলাটি দায়ের করেন। মামলার পর অভিযান চালিয়ে যুবকের ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে কাঁশোপাড়া ইউনিয়নের নাপিতপাড়া গ্রামে।

মামলায় কাঁশোপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান, ইউপি সদস্য আব্দুল কুদ্দুস, গ্রামপুলিশ সামসুদ্দীন কবিরাজ, সাবেক ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম ও ইসমাইল হোসেন, মাতবর আব্দুল মোমিন ফকির ও জেহের আলীকে আসামি করা হয়েছে। থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহবুব আলম মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে অভিযান চালিয়ে যুবক নজরুল ইসলামের ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করা হয়েছে। মামলার এজাহারভ‚ক্ত আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য, নওগাঁর মান্দা উপজেলার কাঁশোপাড়া ইউনিয়নের নাপিতপাড়া গ্রামে প্রতিবেশির স্ত্রীকে শ্লীলতাহানীর অভিযোগ এনে নজরুল ইসলাম নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে গত ২৩ জুলাই সন্ধ্যায় আমিন মৃধার বাড়িতে সালিশের আয়োজন করা হয়। সালিশে গঠিত বোর্ড নজরুল ইসলামের ৬৫ হাজার টাকা জরিমানা করে ঘোষিত রায়কে অমানবিক দাবি করে তা প্রত্যাক্ষান করে ভুক্তভোগী পরিবার।

ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ, পরদিন ২৪ জুলাই রাত ১০ টার দিকে গ্রামপুলিশ দিয়ে নজরুল ইসলামকে পরিষদে ধরে নিয়ে যান চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান। পরে পরিষদের হলরুমে আটকে রেখে জরিমানার ৬৫ হাজার টাকা আদায়ের জন্য তার ওপর চাপ সৃষ্টি করা হয়। এসময় সালিশের মাতবররা সেখানে উপস্থিত ছিলেন। টাকা দিতে অস্বীকার করায় চেয়ারম্যান সাইদুর রহমানের হুকুমে গ্রামপুলিশ সামসুদ্দীন কবিরাজ লাঠি দিয়ে নজরুল ইসলামকে অমানুষিক নির্যাতন করে। পরে ওই রাতেই তার ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি কাঁশোপাড়া গ্রামের আফজাল হোসেনের ছেলে জয়নালের নিকট বিক্রি করে জরিমানার টাকা আদায় করা হয়েছে বলেও তাদের অভিযোগ।

Leave a Response