Thursday, October 22, 2020
রাজনীতি

ভোটারদের সাড়া পেয়ে অভিভূত তরুণ প্রার্থী আদনান

254views

ভোটারদের সাড়া পেয়ে অভিভূত তরুণ প্রার্থী আদনান

ভোটারদের সাড়া পেয়ে অভিভূত তরুণ প্রার্থী আদনাননিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে এবার কাউন্সিলর প্রার্থী হিসাবে যারা প্রতিদ্বদ্বিতা করছেন তার মধ্যে ১৫নং ওয়ার্ডে সবচেয়ে কম বয়সে প্রার্থী ফরহাদ হোসেন আদনান। পুরো রাসিকজুড়ে এমন কম বয়সী আর কোনো কাউন্সিলর প্রার্থী নেই। এটাই তার প্রথম নির্বাচনে অংশ নেয়া। কিন্তু নির্বাচনী মাঠে এসে প্রথমবারই মন জয় করছেন আদনান। প্রতিক বরাদ্দের পর থেকে নগরীর ১৫নং ওয়ার্ডে ব্যাপক গণসংযোগ করছেন তিনি। তিনি ওই ওয়ার্ডের বাঘা বাঘা প্রার্থীদের সাথে এই বয়সে রীতিমত ভোট যুদ্ধে নেমেছেন। তার নির্বাচনী মাঠ পর্যায়ে অবস্থানও অন্য কাউন্সিলর প্রার্থীর চেয়ে ভাল বলে মনে করছেন সমর্থকরা।

নগরীর ১৫নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ৪ জন প্রার্থী রয়েছে। এর মধ্যে আব্দুস সুবহান লিটন ঠেলাগাড়ি, খুরশেদ আলম ট্রাক্টর, রেজাউন-নবি আল মামুন লাটিম ও তাদের ছেলের বয়সী ফরহাদ হোসেন আদনান ঘুড়ি মার্কা নিয়ে প্রতিদ্বদ্বিতা করছেন।

কাউন্সিলর প্রার্থী আদনান বলেন, এই ওয়ার্ডের একজন বাসিন্দা হয়ে আমি দেখেছি দীর্ঘদিন কোনো উন্নয়ন হয়নি। রাস্তাঘাটের তেমন উন্নয়ন নেই। যার ফলে এলাকাবাসীর উৎসহে আমি নির্বাচনের প্রার্থী হয়েছি। তিনি বলেন আমি এই ওয়ার্ডের উন্নয়নের জন্য ১৯দফা ইশতেহার করেছি। নির্বাচিত হতে পারলে এই ইশতেহার আমি পুরণ করবো। তিনি বলেন, এবারই প্রথমবার নির্বাচনে অংশগ্রহন করা আমার। প্রথমবারেই প্রচার প্রচারণায় যে সাড়াপাচ্ছি তাতে জয় নিশ্চিত বলতে পারি। তিনি বলেন, মহিলাদের পাশাপাশি তরুণ ভোটাররা আমার সাথে আছেন। কারণ এই ওয়ার্ডে তরুণ ও মহিলা ভোটাররা আমাকে সমর্থন জানিয়েছেন। তারা আমার সাথে একাত্মতা ঘোষণা করে প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছেন। এলাকার মহিলা ভোটারদের মন জয় করতে সক্ষম হয়েছি। তিনি আশা প্রকাশ করেন, এই নির্বাচনে স্বতস্ফূর্তভাবে এলাকার তরুণ, মহিলা, যুবসমাজসহ সবাই দল মত নির্বিশেষে ঘুড়ি প্রতিকে ভোট দিবেন।

এদিকে মাঠের হিসেবেও আদনান বেশ সাড়া ফেলেছে। তিনি সমর্থকদের নিয়ে প্রতিনিয়ত ভোটারদের দ্বারে-দ্বারে যাচ্ছেন। ভোট চাওয়ার পাশাপাশি দোয়া চাচ্ছেন। তিনি এবার নির্বাচিত হলে পারলে এই ওয়ার্ডের দুর্দশা লাঘব করা হবে বলেও ঘোষণা দিয়েছেন।

এদিকে আদনান একমাত্র তরুণ প্রার্থী হওয়ায় এই ওয়ার্ডের সব শ্রেণীর ভোটাররাও অনেকেই উদ্বুদ্ধ হয়ে তার পক্ষে কাজ করছেন। বিশেষ করে তরুণ ভোটাররা তার পক্ষে ব্যাপক কাজ করছেন। তরুণদের ভাবনায় আদনান বিজয়ী হলে এই ওয়ার্ডের ব্যাপক উন্নয়ন হবে। কারণ তরুণরাই বুঝে তরুণদের কথা। সুখে দু:খে তাকে ডাকলে মানুষ কাছে পাবে বলে এমনটা আশা করছেন সাধারণ ভোটাররা।

Leave a Response