Monday, October 19, 2020
রাজশাহী

বেতনের দাবিতে নগরীর আরবান হেলথ সেন্টারের কর্মীদের বিক্ষোভ

299views

বেতনের দাবিতে নগরীর আরবান হেলথ সেন্টারের কর্মীদের বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক: বেতন ভাতার দাবিতে আরবান প্রাইমারী হেলথ কেয়ারের চিকিৎসাসেবা বন্ধ করে বিক্ষোভ করেছে কর্মচারীরা। সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে রাজশাহী নগরীর ৫টি আরবান প্রাইমারী হেলথ কেয়ারের কর্মীরা টিকাপাড়া হেলথ কেয়ার কেন্দ্রে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করেন। বিক্ষোভকারীরা জানান, বেতন ভাতা পরিশোধ না করা হলে আগামীতে আরো কঠোর কর্মসূচিতে যাবেন তারা। গতকাল বিকেল চারটা পর্যন্ত তারা অবস্থান করেন। আজও সকাল থেকে একই কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছেন তারা। তারা জানান, বর্তমানে সিজারের জরুরি রোগিদের চিকিৎসা দেওয়া হচেছ। এছাড়া আউট ডোর বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।
জানা গেছে, এডিবি ও বাংলাদেশ সরকারের আর্থিক সহায়তায় আরবান প্রাইমারী হেলথ কেয়ার সেন্টার পরিচালিত হয়। স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় এটি পরিচালনা করে। ১৯৯৮ সাল থেকে পরিচালিত এই কার্যক্রমের মাধ্য নাগরিক স্বাস্থ্য সেবা দেয়া হয়। পপুলেশন সার্ভিসেস অ্যান্ড ট্রেনিং সেন্টার-পিএসটিসি রাজশাহী নগরীর ৫টি স্বাস্থ্য কেন্দ্র পরিচালনা করে। এসব স্বাস্থ্য কেন্দ্রের চিকিৎসকসহ কোন কর্মীই গত নয় মাস ধরে বেতন ভাতা পাননি। বেতন ভাতা না পেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন তারা। এই কার্যক্রমের আওতায় রয়েছেন ১২০জন চিকিৎসক, কর্মকর্তা-কর্মচারী। গত ঈদ উল ফিতরে কর্মচারীদের বেতন ও বোনাস দেওয়া কথা থাকলেও দেয়া হয়নি। কর্মচারীরা বলছেন, আরবান প্রাইমারী হেলথ কেয়ারের কর্মীদের ঠিক মতো বেতন ভাতা দেয়া হতো না। এক মাস দিলে দুই মাস বাকি রাখতো। এক মাস দুই মাস বেতন বাকি রাখেতে রাখতে নয় মাসের বেতন বাকি হয়েছে। তার পরেও কর্তৃপক্ষ কোন ব্যবস্থাগ্রহণ করে না। কিছুদিন আগে বলা হয়েছিলো ঈদের আগে সকল বেতন ভাতা পরিশোধ করা হবে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন বেতন ভাতা পরিশোধ করা হয়নি।
এই প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। জুলাই তেকে আবারো নতুন করে প্রকল্প শুরুর কথা রয়েছে। এদিকে, কর্মীরা অভিযোগ করেছেন, এই প্রকল্পের কর্মীদের বেতন কমানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে তারা জানতে পেরেছেন। এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হলে সেই বেতনে বর্তমান বাজারে জীবনযাপন অসম্ভব হয়ে পড়বে।

Leave a Response