Tuesday, October 20, 2020
টপ নিউজরাজনীতি

বিএনপির জনপ্রিয়তা এখন তলানিতে : লিটন

183views

বিএনপির জনপ্রিয়তা এখন তলানিতে : লিটন

বিএনপির জনপ্রিয়তা এখন তলানিতে- লিটননিজস্ব প্রতিবেদক: আওয়ামী লীগ মনোনীত, মহাজোট সমর্থিত মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, ‘বিএনপির তথাকথিত জনপ্রিয়তায় ভীত হওয়ার আমাদের কোনো কারণ নেই। কারণ জাতীয়ভাবেই তাদের কোনো জনপ্রিয়তা নেই। তাদের নেতাকর্মীরা কে কোথায় চলে গেছেন, তার কোনো ঠিক নেই। তারা ক্ষমতায় থেকে সুবিধাবাদী দল, আন্দোলনের কোনো দল নয়। সে কারণে তারা রাজশাহীতে ব্যর্থ মেয়রের পেছনে কাতারবদ্ধ হতে পারেনি। তাদের মধ্যে প্রচুর বিভাজন, তাদের কাজের মধ্য দিয়েই প্রমাণিত হয়েছে। কোনো সমন্বয় নেই, পোস্টার-লিফলেটও ঠিকমতো লাগাতে পারেনি কর্মী সংকটের সাথে। তারা নিজেদের মধ্যে গন্ডগোল করে, বোমাবাজি করে।’ সোমবার নির্বাচনী গণসংযোগের সময় তিনি এসব কথা বলেন। সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত নগরীর ২৬ ও ২৭ নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করেন খায়রুজ্জামান লিটন।

লিটন বলেন, নির্বাচনে পুলিশকে ব্যবহারের যে অভিযোগ তোলা হয়েছে, তার কেনো ভিত্তি নেই। কারণ আওয়ামী লীগ জনগণের দল। জনগণকে সাথে নিয়ে রাজনীতি করে। তিনি আরো বলেন, বিএনপির জনপ্রিয়তা এখন তলানিতে। আমাদের বিজয় সুনিশ্চিত বুঝতে পেরে আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরুর দিন থেকেই অপপ্রচার ও মিথ্যাচারে লিপ্ত হয়েছে। নিজেরা বোমবাজি করে আমাদের উপর দোষ চাপাচ্ছে। লিটন আরো বলেন, নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। নির্বাচনের দিন যতই কাছে আসছে, ভোটারদের মধ্যে উৎসাহ ও আনন্দ ততই বাড়ছে। নির্বাচনের শেষ দিন পর্যন্ত আমরা এমন শান্তিপূর্ণ পরিবেশ রাখতে চাই।

সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় নগরীর ২৭ নং ওয়ার্ডের মঠপুকুর থেকে গণসংযোগ শুরু করেন লিটন। এরপর বালিয়াপুকুর, ছোট বটতলা ও বড় বটতলা মোড়, রাণীনগর, সাধুর মোড়, মোন্নাফের মোড়, ইসলামপুর, বেদীসিংপাড়া, উপর ভদ্রা এবং ২৬ নং ওয়ার্ডের ভদ্রা এলাকায় গণসংযোগ করেন। এ সময় মানুষের বাড়ি বাড়ি ও বিভিন্ন দোকানে গিয়ে রাজশাহীর উন্নয়নের স্বার্থে স্বাধীনতা ও উন্নয়নের প্রতীক নৌকা মার্কায় ভোট চান। নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সব শ্রেণীপেশার মানুষ গণসংযোগের প্রচার মিছিলে যোগ দেয়। এরপর নগরীর ভদ্রা মোড়ে নির্বাচনী পথসভায় লিটন বলেন, উন্নত রাজশাহী গড়তে চাই। গত ৫ বছর যেভাবে রাজশাহী পিছিয়ে গেল, এভাবে পিছিয়ে যেতে চাই না। রাজশাহীর উন্নয়নে স্বাধীনতা, শহীদদের, উন্নয়ন ও অর্জনের প্রতীক নৌকা মার্কায় ভোট দিন। নৌকা মার্কায় ভোট দেন, রাজশাহীর উন্নয়ন বুঝে নিবেন।

এদিকে বিকেলে ঝিরিঝিরি বৃষ্টি উপেক্ষা করে লিটনের নির্বাচনী পথসভার স্থলে উপস্থিত হন হাজার হাজার নারী-পুরুষ। বৃষ্টিতে ভিজেই তারা খায়রুজ্জামান লিটনের বক্তব্য শোনেন। পথসভায় অংশ নেয়া নারীরা বলেছেন, প্রিয় নেতা লিটন ভাইকে দেখতে ও তার বক্তব্য শুনতে বৃষ্টিতে ভিজেই পথসভায় অংশ নিয়েছেন তারা। রাজশাহীর উন্নয়নের স্বার্থে আগামী নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে তাকে মেয়র নির্বাচিত করবেন।

জানা যায়, সোমবার বিকেলে মহানগরীর মেহেরচন্ডী স্কুল মাঠের পাশে স্থানীয় ২৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের নির্বাচনী পথসভার আয়োজন করা হয়। সভা শুরুর আগেই বিকেল ৪টা থেকেই সভাস্থলে স্বতঃস্ফূর্তভাবে জড়ো হতে থাকেন শতশত নারী-পুরুষ। তবে পুরুষদের চেয়ে নারীদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। বিকেল সাড়ে ৫টায় ঝিরিঝিরি বৃষ্টি শুরু হলেও সভাস্থলে আসতে থাকেন নারীরা। এরপর বৃষ্টিতে ভিজেই খায়রুজ্জামান লিটনের পথসভায় উপস্থিত ছিলেন তারা।

পথসভায় অংশ নেয়া হোসনে আরা লাবনী, মুক্তা খাতুনসহ অন্যরা বলেন, যতই বৃষ্টি হোক লিটন ভাইয়ের বক্তব্য আমরা শুনবো। লিটন ভাই ছাড়া নারীদের উন্নয়নে কেউ কাজ করে না। তাই এ এলাকার নারীরা ঐকবদ্ধ হয়েছেন, লিটন ভাইকে ভোট দেয়ার জন্যে। সেই ভালোবাসা থেকেই বৃষ্টিতে ভিজেও এই সভায় নারীরা এসেছেন। আগামী নির্বাচকে লিটন ভাইকে ভোট দিয়ে মেয়র নির্বাচিত করবো।

নির্বাচনী পথসভায় লিটন বলেন, বিএনপির মেয়র গত ৫ বছর নগরীর কোনো উন্নয়ন করতে পারেননি। আমি নির্বাচিত না হলেও আমি ও সাংসদ ফজলে হোসেন বাদশা মিলে উন্নয়ন প্রকল্প এনে রাজশাহীর কাজ করেছি। আমরা ৫ বছর ধরে পিছিয়ে গেলাম, আর পেছাতে চাই না। আমরা সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চাই। খায়রুজ্জামান লিটন আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি করে পাইপ লাইনের গ্যাস এনেছি। গ্যাস থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করে শিল্পকারখানায় ব্যবহার করা হবে। ৫ বছরে অন্তত একশ শিল্পকারখানা গড়ে তোলা হবে। যেখানে লক্ষাধিক ছেলে-মেয়ের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা হবে। খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ঈদের আগে সিটি কর্পোরেশনের ২৬০০ কর্মচারীর বেতন দেয়ার ভয়ে বিএনপির তৎকালীন মেয়র ৫ দিন পালিয়ে ছিলো। যে মেয়র নিজ কর্মচারীদের বেতন দেওয়ার ভয়ে পালিয়ে থাকে, তিনি নগরীর ৮ লাখ মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করবেন কীভাবে? মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে যে মেধা, যোগ্যতা ও শিক্ষাগত যোগ্যতা লাগে, সেটি বিএনপির ওই মেয়রের কোনোদিন ছিল না, এখানো নাই।

স্বাধীনতা ও উন্নয়নের প্রতীক নৌকা মার্কায় ভোট দেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, আর ভুল করবেন না। এদিক সেদিক না যেয়ে সোজা পথে আসুন। নৌকায় ভোট দিন, আমার কাছ থেকে উন্নয়ন বুঝে নিন। ২৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম বাচ্চুর সভাপতিত্বে পথসভায় বক্তব্য দেন নগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবালসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা।

নাগরিক সমাবেশ: এদিকে সন্ধ্যায় ২৬ নং ওয়ার্ডের (পশ্চিম) এর সম্মিলিত এলাকাবাসীর উদ্যোগে চন্দ্রিমা আবাসিক এলাকায় নাগরিক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। চন্দ্রিমা আবাসিক এলাকা কল্যান সমিতির সভাপতির ডা. তবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। তিনি তাঁর বক্তব্যে রাজশাহীর উন্নয়নের সাথে নৌকা মার্কায় ভোট চান।

Leave a Response