Thursday, October 22, 2020
রাজশাহী

বাঙালির প্রতি বঙ্গবন্ধুর ভালোবাসা পরিমাপ করা যাবে না : মেয়র লিটন

205views

বাঙালির প্রতি বঙ্গবন্ধুর ভালোবাসা পরিমাপ করা যাবে না : মেয়র লিটন

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, বঙ্গবন্ধু সারাজীবন যে শব্দগুলো ব্যবহার করেছিলেন, তার মধ্যে অন্যতম বাঙালি শব্দটি। তিনি সারাজীবন বাঙালি-বাঙালি করে গেছেন। বাঙালিকে অন্তর থেকে ভালোবেসেছেন, বাঙালির প্রতি তাঁর এই ভালোবাসা কোনো কিছু দিয়েই পরিমাপ করা যাবে না।

যে বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতিকে এতো ভালোবাসতেন, তিনি বেঁচে থাকলে বাংলাদেশকে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে যেতে পারতেন, তাঁকে পরিবারসহ নির্মমভাবে হত্যা করা হলো। আমরা বাঙালি জাতিই এতো অকৃতজ্ঞ জাতি। মঙ্গলবার বিকেলে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয় (রুয়েট) প্রশাসনের উদ্যোগে রুয়েট মিলনায়তনে জাতীয় শোক দিবস ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৩তম শাহাদতবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, বিএনপির জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে ছিলেন। তিনি জানতেন সেদিন রাতে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হবে। পরদিন দায়িত্ব নেওয়ার জন্যে তিনি গভীর রাতে মুখ সেভ করেছিলেন, প্রস্তুতি নিয়েছিলেন। যে বঙ্গবন্ধু তাকে বারবার প্রমোশন দিয়ে মেজর জেনারেল করেছিলেন, সেই অকৃতজ্ঞ জিয়া নেপথ্যে থেকে বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রেক্ষাপট তৈরি করেছিল। জাতীয় চার নেতার অন্যতম শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান হেনার সন্তান মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন আরো বলেন, আমাদের ভাগ্যে যা ঘটে গেছে, তা ঘটে গেছে। এখন বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে সবাইকে কাজ করে যেতে হবে। এই দেশ সোনার বাংলা হলে বঙ্গবন্ধু ও শহীদদের আত্মা শান্তি পাবে।

সভাপতির বক্তব্যে রুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম শেখ বলেন, নদীর স্রোত হয়তো শেষ হয়ে যাবে, সময় বয়ে যাবে, কিন্তু বঙ্গবন্ধুর মতো নেতাকে আর পাওয়া যাবে না। মহান নেতা বঙ্গবন্ধু বিভিন্ন ঘাতপ্রতিঘাত পেরিয়ে মহামানবে পরিণত হয়েছিলেন। বাঙালির প্রতি গভীর ভালোবাসা থেকে তিনি সবাইকে মুক্তিযুদ্ধের জন্যে একত্রিত করতে পেরেছিলেন। তিনি একজন সফল রাজনীতিবিদ ও রাষ্ট্রনায়ক।

আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন পুরকৌশল বিভাগের ডীন অধ্যাপক ড. আব্দুল আলীম, যন্ত্রকৌশল বিভাগের ডীন অধ্যাপক ড. শামীমুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মোশাররফ হোসেন, ছাত্রকল্যান পরিচালক এনএইচএম কামরুজ্জামান সরকার। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন রুয়েট ছাত্রলীগের সভাপতির নাঈমুর রহমান নিবিড়। মতবিনিময় সভায় রুয়েটের শিক্ষকবৃন্দ, রুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী মাহফুজুর রহমান তপুসহ ছাত্রলীগের নেতাকর্মী, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Response