Saturday, October 24, 2020
শিক্ষাঙ্গন

বাগমারায় চাঁদা না দেয়ায় বিদ্যালয়ে তালা

213views

বাগমারায় চাঁদা না দেয়ায় বিদ্যালয়ে তালা

বাগমারা সংবাদদাতা: রাজশাহীর বাগমারায় চাঁদা না দেয়াই শিক্ষকদের লাঞ্ছিত করে বিদ্যালয়ে তালা ঝুঁলিয়ে দিয়েছেন স্থানীয় বিএনপির নেতা রফিকুল ইসলাম। তবে রফিকুল ইসলামের পক্ষের লোকজনের দাবী বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সদস্য না রাখায় এমন ঘটনাটি ঘটিয়েছে তারা। ওই ঘটনার পর থেকেই এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছে। ওই ঘটনায় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক চিমান আলী বাদী হয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও বাগমারা থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নরদাশ ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও বিএনপি’র নেতা রফিকুল ইসলাম তার দলবল নিয়ে গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে নরদাশ উচ্চ বিদ্যালয়ে যান এবং শিক্ষকদের ক্লাসরুম থেকে বের দেন। এ সময় শিক্ষকেরা প্রতিবাদ করলে তাদেরকে লাঞ্চিত করেন এবং বিদ্যালয়ের ক্েক্ষ কক্ষে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে শিক্ষকদের তাড়িয়ে দেন। ঘটনার সময় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক চিমান আলী বিদ্যালয়ের কাজের জন্য বাহিরে ছিলেন বলে বিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষক জানিয়েছেন।

এলাকার লোকজন ও বিদ্যালয়ের একাধিক শিক্ষক জানান, বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি হওয়ার জন্য দীর্ঘদিন থেকে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও বিএনপি’র নেতা রফিকুল ইসলামের সাথে প্রধান শিক্ষক চিমান আলী দন্ড চলে আসছিল। প্রধান শিক্ষক চিমান আলী ইউপি সদস্য ও বিএনপি’র নেতা রফিকুল ইসলামের নাম বাদ দিয়ে ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি মমতাজ হোসেনকে সভাপতি নির্বাচিত করে কমিটির অনুমোদন নেন। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে ইউপি সদস্য ও বিএনপি’র নেতা রফিকুল ইসলাম তার অনুগতদের নিয়ে বিদ্যালয় অচল করে দিবে বলে প্রধান শিক্ষক চিমানকে হুমকি দেন। বিষয়টি মিমাংসার জন্য ইউপি সদস্য ও বিএনপি’র নেতা রফিকুল ইসলাম তার লোকজনকে মিটমাট করার জন্য প্রধান শিক্ষক চিমান আলীর কাছে লক্ষাধিক টাকার চাঁদা দাবী করেন। প্রধান শিক্ষক চিমান আলী চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে রফিকুল ইসলাম তাকে বিদ্যালয় খুলতে নিশেধ করেন। প্রধান শিক্ষক চিমান আলী রফিকুল ইসলামের হুমকি ধামকির কথা কর্ণপাত না করে রোজার ছুটি শেষে গতকাল শনিবার বিদ্যালয় খুলেন। বিদ্যালয় খোলার পর পরই ইউপি সদস্য ও বিএনপি’র নেতা রফিকুল ইসলাম তার বাহিনী নিয়ে বিদ্যালয়ে হাজির হন এবং বিদ্যালয় থেকে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের বাহির করে দেন। বিষয়টি বাগমারা থানার পুলিশকে অবহিত করলেও পুলিশ কোন ব্যবস্থাই নেয়নি। সোমবার সকালে শিক্ষকেরা বিদ্যালয় খুললে রফিকুল ইসলাম তার বাহিনী নিয়ে বিদ্যালয়ে যায় এবং শিক্ষকদের লাঞ্চিত করে ক্লাসরুমে তালা ঝুলিয়ে দেয়।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক চিমান আলী অভিযোগ করে বলেন, বিদ্যালয়ের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার জন্য ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম দীর্ঘদিন থেকে আমার সাথে ঝামেলা করে আসছে। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপরাধের একাধিক মামলা বিচারাধীন রয়েছে। যার কারনেই আমি তাকে বিদ্যালয়ের কমিটিতে রাখতে পারিনি। অথচ তিনি জোর পূর্বক বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি হবেন বলে তার লোকজন নিয়ে বিদ্যালয়ে শিক্ষকদের লাঞ্চিত করে তালা ঝুলিয়ে দেন। তিনি তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকিউল ইসলাম জানান, ঘটনাটি প্রধান শিক্ষক আমাকে জানিয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি স্থানীয় সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

Leave a Response