Thursday, October 22, 2020
রাজশাহী

পবায় প্রতিপক্ষের মারপিটে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে বৃদ্ধ

224views

পবায় প্রতিপক্ষের মারপিটে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে বৃদ্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক: জমিজমাকে কেন্দ্রে করে প্রতিপক্ষের মারপিটে রাজশাহীর পবার কুমড়াপুকুর ঘুনপাড়া এলাকায় এক বৃদ্ধ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। প্রতিপক্ষের লোকজন ওই বৃদ্ধসহ তার দুই মেয়েকে উপর্যুপুরি কুপিয়ে জখম করেছে। রামেক হাসপাতালের ৫নং ওয়ার্ডের বিছানায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে বৃদ্ধ আব্দুস সামাদ।

সামাদের মেয়ে সামেনা বেগম জানান, পবা থানার কুমড়াপুকুর মোজার আরএস খতিয়ান ১০২, ১০৬ নং দাগে ৫৭শতক জমি রয়েছে তাদের। এই জমির পাশেই রয়েছে ওই এলাকার সামসুর রহমানের জমি। বৃদ্ধের জমিতে নিজ বাড়ি রয়েছে। সামসুর রহমানের জমি বৃদ্ধ আব্দুস সামাদের বাড়ির উত্তর দিকে নিচে। কিন্তু সামসুর রহমান গত কয়েক বছর থেকে বৃদ্ধর ওই জমি দখলের চেষ্টা করে। এরই মধ্যে গত বছর বৃদ্ধের বাড়িতে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয় সামসুর রহমান। পরে এব্যাপারে আদালতে মামলা দায়ের করেন বৃদ্ধ আব্দুস সামাদ। সে মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। এরই জের ধরে গত ২জুলাই বিকেলে সামসুর রহমান তার লোকজন নিয়ে বৃদ্ধের ওই বাড়ির জায়গা দখল করতে যায়। এসময় বৃদ্ধ ও তার পরিবারের লোকজন বাধা দিলে তাদের উপর হামলা চালানো হয়। সামসুরসহ তার লোকজন বৃদ্ধকে হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। একই সাথে তার দুই মেয়ে সামেনা ও আলেয়াকেও কুপিয়ে জখম করা হয়। পরে স্থানীয়রা বৃদ্ধ সামাদ ও তার দুই মেয়েকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। তিনি আরো জানান হাসপাতালে ভর্তির পর তার বাবার অপারেশন করা হয়েছে। এখন তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। তিনি অভিযোগ করেন, হাসপাতালে ভর্তির পর সামসুর রহমান ও তার লোকজন বিভিন্নভাবে হুমকি ধামকি অব্যাহত রেখেছেন। এব্যাপারে ঘটনার দিন রাতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এব্যাপারে পবা থানার উপপরিদর্শক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আব্দুল আওয়াল জানান, ঘটনার পর দুপক্ষই মামলা দায়ের করেছেন। মামলার জের ধরে সামসুর রহমানকে আটক করা না হলেও পুলিশের নজরদারিতে রাখা হয়েছে। যেকোনো সময় তাকে আটক করা হবে বলেও জানান তিনি।

Leave a Response