Wednesday, October 21, 2020
উত্তরাঞ্চল

তেঁতুলিয়া স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র এবারও দেশ সেরা

146views

তেঁতুলিয়া স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র এবারও দেশ সেরা

মান্দা প্রতিনিধি: নওগাঁর মান্দা উপজেলার তেঁতুলিয়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র এবারও দেশ সেরার পুরস্কার লাভ করেছে। নিরাপদ প্রসব, গর্ভবতী পরিচর্যা, মা ও শিশু পরিচর্যাসহ কয়েকটি বিষয়ে সাফল্য অর্জন করায় দেশ সেরার পুরস্কার তুলে দেয়া হয়েছে সংশ্লিষ্টদের হাতে। গত ১২ বছর ধরে ধারাবাহিকভাবে সাফল্য অর্জন করে আসছে এ স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি।

সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে তেঁতুলিয়া ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে ১ হাজার ৭১৬ জন নারীকে নিরাপদ প্রসব করানো হয়েছে। ২ হাজার ৩৫৬ জন নারীকে দেয়া হয়েছে গর্ভবতী পরিচর্যা। এছাড়া ৩ হাজার ৩ জন নারীকে গর্ভোত্তর পরিচর্যা, ৭ হাজার ৫৭০ জনকে শিশু পরিচর্যা, ২৩৫ জন নারীকে পরিবার পরিকল্পনা পদ্ধতি ও ১ হাজার ৪১০ জন কিশোর-কিশোরীকে প্রজনন স্বাস্থ্য শিক্ষা প্রদান করা হয়েছে।

সুত্রটি আরও জানায়, ২০০৬ সালে এ স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি প্রথম দেশ সেরার পুরস্কার লাভ করে। এরপর ধারাবাহিকভাবে এ সাফল্য অর্জন করে আসছে। এর মধ্যে ২০০৭ সালে জেলা এবং ২০০৯ ও ২০১৩ সালে বিভাগ সেরার পুরস্কার লাভ করে স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি। অবশিষ্ট বছরগুলোতে বিভাগ সেরা হয়ে জাতীয় পর্যায়ে দেশ সেরার পুরস্কার লাভ করেছে। গত ১১ জুলাই ঢাকার ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে মা ও শিশু স্বাস্থ্য এবং পরিবার পরিকল্পনায় বিশেষ অবদানের জন্য এ স্বাস্থ্য কেন্দ্রটিকে আবারও দেশ সেরার পুরস্কারে ভ‚ষিত করা হয়েছে। জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপি সংশ্লিষ্টদের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন।

জানা গেছে, এ স্বাস্থ্য কেন্দ্রে উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার পদে মোজাম্মেল হক, পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক শফিকুর রহমান, পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা পদে নাহিদ সুলতানা, ফার্মাস্টিট পদে নাজমা খাতুন, এমএলএসএস পদে আব্দুর রহিম ও আয়া পদে আনোয়ারা বেগম কর্মরত রয়েছেন। এদের মধ্যে মোজাম্মেল হক, নাহিদ সুলতানা, শফিকুর রহমানসহ সংশ্লিষ্ট তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ব্রজেন্দ্রনাথ সাহাকে শ্রেষ্ট চেয়ারম্যান হিসেবে পুরস্কারে ভ‚ষিত করা হয়েছে।

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আফম আছফানুল আরেফিন জানান, এ স্বাস্থ্য কেন্দ্রটিতে মেডিকেল অফিসারের একটি পদ রয়েছে। কিন্তু সেখানে কাউকে নিয়োগ দেয়া হয়নি। স্বাস্থ্য কেন্দ্রটিতে একজন মেডিকেল অফিসার পদায়ন করা হলে চিকিৎসাসেবার মান আরও বৃদ্ধি পাবে।

এদিকে রোববার দুপুরে স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি পরিদর্শন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার খন্দকার মুশফিকুর রহমান। তিনি বলেন, স্বাস্থ্য কেন্দ্রটির ধারাবাহিক এ সাফল্য মান্দাবাসির অর্জন। আগামিতে স্বাস্থ্য কেন্দ্রটিকে আরও গতিশীল করতে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন। এসময় তিনি পরিদর্শন বই এ স্বাক্ষর করেন তিনি।

Leave a Response