Friday, October 30, 2020
উত্তরাঞ্চল

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে আওয়ামীলীগের ডজন খানেক মনোনায়ন প্রত্যাশী

533views

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে আওয়ামীলীগের ডজন খানেক মনোনায়ন প্রত্যাশী

নাচোল প্রতিনিধি: নাচোল, গোমস্তাপুর ভোলাহাট (চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসনে) আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামীলীগের ডজন খানেক মনোনায়ন প্রত্যাশী বিভিন্ন প্রচার প্রচারনায় সরব। বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরার মাধ্যমে ৩ উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকায় দিনভর উঠান বৈঠক, সভা-সমাবেশ, নেতা-কর্মীদের সাথে সাংগঠনিক বিষয়ে দলের তথা বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সরকারের হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে ভোটারদের মাঝে প্রচার অভিযান চালিয়ে যাচ্ছেন।

এদিকে আওয়ামীলীগ দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে বর্তমান সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক মুহা. গোলাম মোস্তফা বিশ্বাস, সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি জিয়াউর রহমান, নাচোল উপজেলা চেয়ারম্যান ও নাচোল উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের, ভোলাহাট উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. আশরাফুল ইসলাম চুন্নু, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আনোয়ারুল ইসলাম আনোয়ার, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সহ-সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সৈকত জোয়ার্দার, বিশিষ্ট আইনজীবি এ্যাডভোকেট আফসার আলী, শিক্ষাবিদ ও শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ নেতা ড. অজিত দাশ, প্রবাসে অবস্থানরত প্রখ্যাত আইসিটি বিশেষজ্ঞ ড. আফজাল হোসেনসহ আরো বেশকিছু আওয়ামীলীগ দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নাম শোনা যাচ্ছে।

এদিকে, সদ্য আগত সাবেক গোমস্তাপুর উপজেলা চেয়ারম্যান ও ২০১৪ সালে ৫ জানুয়ারী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী খুরশেদ আলম বাচ্চুর আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশা করে ব্যানার-ফেস্টুন টাঙিয়েছেন। নির্বাচনের তারিখ যতই ঘনিয়ে আসছে, নেতা-কর্মীদের মাঝে দলীয় কর্মকান্ডের বিষয় নিয়ে চরম হতাশা দেখা যাচ্ছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ৫টি উপজেলার মধ্যে একমাত্র নাচোল উপজেলায় দীর্ঘদিন যাবত উপজেলা আওয়ামীলীগের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়নি। ফলে অনেকটাই নাচোল উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতৃত্বশুণ্য হয়ে পড়েছে। আর এর মাঝেই চলছে লবিং-গ্রুপিং এর দ্বদ্ব। ফলে ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের মাঝে হতাশা বিরাজ করছে। ২০০৫ সালে নাচোল মহিলা কলেজে উপজেলা আওয়ামীলীগের কাউন্সিল হওয়ার পর অদ্যাবধী কাউন্সিল না হওয়ায় জেলা নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় প্রবীণ নেতা-কর্মীরা বহুবার চেষ্টা করে দলীয় দ্বদ্ব কলহের জন্য ব্যর্থ হয়েছে বলে দলীয়সূত্রে জানা গেছে।

অন্যদিকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর সভায় অওয়ামীলীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকল হতাশা ও দলীয় অন্তরকলহ কাটিয়ে উঠে নেতা-কর্মীদের চাঙা করে সকল ভেদাভেদ ভুলে দলীয় মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে নৌকা প্রতিকে ভোট দিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগকে পূণরায় ক্ষমতায় যেতে সহায়তার মাধ্যমে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার অহ্বান জানান। এদিকে ক্ষমতাশীন দলের ২ টার্মে অনেক নেতা-কর্মীদে বিরুদ্ধে গ্রাম পর্যায়ের তৃনমুল নেতা-কর্মীরা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে সৎ, যোগ্য ও দূর্ণীতিমুক্ত প্রার্থীকে মনোনয়ন দিতে তৃণমূল নেতা-কর্মীরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

Leave a Response