Saturday, October 24, 2020
রাজশাহী

আমাকে ভোট দিন, নির্বাচিত হলে উন্নয়ন বুঝে নিবেন : লিটন

250views

আমাকে ভোট দিন, নির্বাচিত হলে উন্নয়ন বুঝে নিবেন : লিটন

নিজস্ব প্রতিবেদক: আওয়ামী লীগ মনোনীত মহাজোট সমর্থিত মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, ‘আমি নির্বাচিত হলে নগরীরতে শিল্পায়নের মাধ্যমে এক লাখ ছেলে মেয়ের চাকরির ব্যবস্থা করবো। গত পাঁচ বছরে পিছিয়ে যাওয়া রাজশাহীতে ব্যাপক উন্নয়ন করা হবে। আমি যা করতে পারি, সেটাই বলি। আমাকে ভোট দিন, মেয়র নির্বাচিত হলে উন্নয়ন বুঝে নিবেন।’ শনিবার নগরীর ৩০নং ওয়ার্ডে গণসংযোগের সময় ভোটারদের উদ্দেশে তিনি এসব কথা বলেন।

শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নগরীর ৩০ নং ওয়ার্ডের বুধপাড়া নগর স্বাস্থ্য কেন্দ্রের সামনে থেকে গণসংযোগ শুরু করেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। এরপর বুধপাড়ার নজিরের মোড়, সেলিমের মোড়, জনাবের মোড়, মধ্য বুধপাড়া, পশ্চিম বুধপাড়া, পশ্চিম বুধপাড়া মসজিদের মোড়, স্কুল মোড় এলাকায় গণসংযোগ করেন খায়রুজ্জামান লিটন। বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত এসব এলাকায় গণসংযোগ করেন তিনি। গণসংযোগের সময় নগরীর উন্নয়নে বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোট প্রার্থনা করেন তিনি।

বুধপাড়া এলাকায় গণসংযোগের সময় স্থানীয়রা বলেন, বুধপাড়ায় অনেক এলাকায় পাকা রাস্তা নেই। রাস্তা না থাকার বৃষ্টিতে হাটু সমান কাঁদা হয়। আমাদের দাবি এই ভোগান্তি থেকে রক্ষা করবেন। এ সময় খায়রুজ্জামান লিটন বুধপাড়াবাসীদের আশ্বাস দিয়ে খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, আমাকে ভোট দিয়ে কাজ করার সুযোগ দিন। আমি আপনাদের রাস্তঘাট করে দেবো। জীবনমান উন্নয়নে যা যা করা দরকার করবো। বুধপাড়া এলাকায় গণসংযোগের সময় এক জায়গায় সমবেত হন শতাধিক নারী। উপস্থিত নারীরা খায়রুজ্জামান লিটনের কাছে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা ও নারীদের উন্নয়নের দাবি জানান। খায়রুজ্জামান লিটন এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দেন ও ভোট চান। এ সময় নগরীর উন্নয়নে লিটনকে ভোট দেয়ার অঙ্গীকার করেন নারীরা

গণসংযোগের সময় উপস্থিত ছিলেন ৩০ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি রাব্বেল হাসানসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এদিকে দুপুর ২টার দিকে মাসকাটদিঘি এলাকায় এক মতবিনিময় সভায় যোগ দেন খায়রুজ্জামান লিটন। ৩০ নং ওয়ার্ডের প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল কুদ্দুসের সভাপতিত্বে ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হান্নানের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন খায়রুজ্জামান লিটন।

এ সময় খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, সদ্য বিদায়ী বিএনপির মেয়রের কারণে রাজশাহীবাসী পাঁচ বছর পিছিয়ে গেল। তিনি একটিও উন্নয়ন করতে পারলেন না। যা দেখে আমরা বুঝবো তিনি কাজ করেছেন। তিনি রাজশাাহীর উন্নয়নে কিছুই করতে পারলেন না। রাজশাহীর মানুষ এখন এই অবস্থা থেকে পরিবর্তন চায়। এই পরিবর্তনের জন্যে তারা নৌকা প্রতীকের জন্যে ঐক্যবদ্ধ হয়েছেন। সভায় রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জামাত খান বলেন, গত নির্বাচনে রাজশাহীবাসী ভুল করেছিল। যার ফলে পাঁচ বছর ধরে নগরীর কোনো উন্নয়ন হয়নি। রাজশাহীবাসী আর কোনো ভুল করতে চাই না। উন্নয়নের স্বার্থে এবার সবাই খায়রুজ্জামান লিটন ভাইকে ভোট দিবেন। এদিকে মতবিনিময় সভা শেষে মাসকাটাদিঘি ও বুধপাড়া এলাকার মানুষের বাড়ি বাড়ি যান ও ভোট চান খায়রুজ্জামান লিটন।

Leave a Response