Friday, October 23, 2020
টপ নিউজরাজশাহীশিক্ষাঙ্গন

আইসিইউ এর অপেক্ষাতেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন রাবি ছাত্র মামুন

90views

আইসিইউ এর অপেক্ষাতেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন রাবি ছাত্র মামুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিইউ এর জন্য অপেক্ষা করতে করতেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আব্দুল্লাহ আল মামুন। বেড খালি থাকার পরও রাতে হাসপাতাল পরিচালকের অনুমতি না পাওয়ায় তাকে আইসিইউতে নেয়া সম্ভব হয়নি বলে অভিযোগ করেছেন মামুনের সহপাঠিরা।

মামুন রাজশাহীর নওহাটা এলাকার আক্কাস আলীর ছেলে। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। আলসার ও জন্ডিসের সমস্যা নিয়ে ২১ নম্বর ওয়ার্ডের ভর্তি ছিলেন মামুন।

হাসপাতালে মামুনের সঙ্গে থাকা তার সহপাঠী ঈসমাইল হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার ভোররাতে মামুনকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেওয়ার প্রয়োজন পড়ে। তারা আইসিইউর জন্য যোগাযোগ করলে সেখান থেকে জানানো হয় বেড ফাঁকা নাই। তবে একটি ‘রিজার্ভ’ সিট ফাঁকা আছে বলে জানানো হয়। এই সিট পেতে হলে হাসপাতালের পরিচালকের লিখিত অনুমতি লাগবে বলে দায়িত্বরতরা জানান। সিট পেতে হাসপাতাল পরিচালককে রাতে ফোন করেন তারা। তবে তিনি ফোন ধরেননি। সকালে তাদের পরিচালকের সঙ্গে দেখা করার কথা ছিলো। এরইমধ্যে সকালে মারা যান মামুন।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউ নিউনিটের প্রধান ডা. আবু হেনা মোস্তফা কামাল জানান, এ বিষয়ে আমার সাথে কেউ যোগাযোগ করেনি। আর আমি মুলত এখানকার কভিড রোগিদের জন্য বরাদ্দকৃত যে ১০টি বেড রয়েছে সেগুলোই দেখাশোনা করি। বাকি ৫টি বেড় দেখেন অন্য একজন চিকিৎসক। তিনি জানান, মন্ত্রনালয়ের নির্দেশনা মতেই এই ৫টি বেডের মধ্যে একটি বেড রিজার্ভ হিসেবে ধরা হয়। এই বেড ফাঁকা থাকলে হাসপাতাল পরিচালকের অনুমতি সাপেক্ষে সেখানে রোগি ভর্তি করানো হয়।

এদিকে, আইসিইউ এর সাধারণ ৫টি ওয়ার্ডের দায়িত্বে থাকা ডা. জামিল রায়হান জানান, এই ৫টি বেডের সবকটিতেই রোগি আছে। আর রোগি থাকা অবস্থায়তো আর অন্য রোগি নেয়ার কোন সুযোগ নেই। তিনি জানান, একটি বেডের জন্য হাসপাতাল পরিচালকের অনুমতি লাগে। তবে সেই বেডটিতেও এখন রোগি আছে। তিনি দাবি করেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রের বিষয়ে আমার কিছু জানা নেই। আমার সাথে কেউ যোগাযোগ করেওনি।

Leave a Response